‘কাকলি ফার্নিচারের বাবা’, এবার নেটপাড়ায় ভাইরাল নতুন VIDEO

ইদানিং সামাজিক মাধ্যমে চোখ রাখলেই কাকলি ফার্নিচারের রমরমা দেখতে মিলছে। বাংলাদেশী আসবাব প্রস্তুতকারক এই সংস্থার বিজ্ঞাপন এখন নেটপাড়ার নয়া ট্রেন্ড।

নিজের ফেসবুক ওয়াল থেকে অন্যের কমেন্ট বক্স, সর্বত্র এখন কাকলি ফার্নিচার। তবে সোশ্যাল মিডিয়ার রঙ্গ বোঝা খুবই শক্ত ব্যাপার। কাকলি ফার্নিচারের ট্রেন্ড এখনও শেষ হয়নি, এরই মধ্যে দোসর ‘কাকলি ফার্নিচারের বাবা’। নেটজনতারা এখন মজেছে কাকলিকে ছেড়ে তার বাবাই।

এবার সোশ্যাল মিডিয়ার ধুম লেগেছে কাকলি ফার্নিচারের বাবার মিম-ভিডিও (Meme Video) তৈরিতে। তবে কাকলি ভিনদেশী হলেও, তার বাবা স্বদেশী। অর্থাৎ কাকলির বাবার নামে যে ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে, সেই সম্পর্কের সমীকরণ নেটিজেনদেরই তৈরি।

এবার চাচার ফার্নিচারের ভিডিও ভাইরাল (Viral Video) হচ্ছে, সেই চাচার শো রুম বর্ধমানে (Bardhaman)। কাকলির পরে এবার চাচার ফার্নিচারের ভিডিও এখন নেট রঙ্গ। ভাইরাল (Viral) হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, চাচা বুলেট থেকে নামা মাত্রই, স্থানীরা নানান অভাবের কথা শোনাতে থাকে তাকে।

পর্যাপ্ত পয়সার অভাবে তারা বাড়ির আসবাব কিনতে পারছে না বলে চাচাকে জানায়। আর তাতেই আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন চাচা।

এরপরই চাচার শো রুমে তৈরি হতে থাকে সোফা-খাট থেকে ঘরের অন্যান্য আসবাব। তৈরি হওয়া মাত্রই অনেক কম দামে সেগুলো সেই স্থানীয়দের দিকে ছুঁড়তে থাকেন চাচা। অবশ্য তা স্পেশাল এফেক্টের সাহায্যে।

আর তা দেখে নেটিজেনদের মধ্যে কেউ কেউ বলতে থাকেন ‘কাকলি ফার্নিচার মাক্স প্রো’, তো কেউ মন্তব্য করেন ‘কাকলি ফার্নিচারের বাবা’। আর নেটরঙ্গে তা কাকলি ফার্নিচারের মতোই খামতি হচ্ছে না।

প্রসঙ্গত, ৩-৪ দিন নেটপাড়ায় কাকলির বসবাস। তাও এখনও অনেকে জানেন না, কী এই ‘কাকলি ফার্নিচার’। জেনে রাখুন ‘দামে কম মানে ভালো’ এই কাকলি ফার্নিচার আসলে বাংলাদেশের (Bangladesh) আসবাব প্রস্তুতকারক সংস্থার একটি বিজ্ঞাপন।

সেই ভিডিও নেট রসিকতায় খোরাক জুগিয়েছে দারুন। ওই বিজ্ঞাপনে দেখা গিয়েছিল, দুটি অল্পবয়সী মেয়ে ‘দামে কম মানে ভালো, কাকলি ফার্নিচার’ বলতে বলতে শো রুমের মধ্যে একবার সোফায় উঠে তো একবার খাটে উঠে লাফাতে থাকে।

আর পুরো ভিডিও বিজ্ঞাপনে মেয়ে দুটির মুখে ওই একটি লাইনই নেট নাগরিকের বিনোদনের রসদ হয়ে উঠেছে। তবে এবার ‘চাচার ফার্নিচারের’ বিজ্ঞাপনকে নেটপাড়া ‘কাকলি ফার্নিচারের’ একধাপ উপরে বলে আখ্যায়িত করছেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *